ভাগ্যকুলে অবৈধ ড্রেজার বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্যর হুকুমে হামলার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:৫৪ PM, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২১
ড্রেজার বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউপি সদস্যর হুকুমে এক বাড়িতে হামলা ও ভাঙচূর করার অভিযোগ

শ্রীনগরে ড্রেজার বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে ভাগ্যকুলে স্থানীয় ইউপি সদস্যর হুকুমে এক বাড়িতে হামলা ও ভাঙচূর করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার বিকালের দিকে ভাগ্যকুল ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. মোশারফ বেপারীর হুকুমে একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মধ্য কামারগাঁওয়ের আমিনুল ইসলামের বাড়িতে এই হামলার ঘটনায় ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচূর করা হয়েছে। অপরদিকে মোশারফ মেম্বার সুইট ড্রেজার সিন্ডিকেটের কাছ থেকে ১ লাখ টাকা নেয়ার বিষয়টিও সূত্রমতে জানা গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাটি এলাকায় মিমাংসার জন্য একটি মহল চেষ্টা করছেন।

স্থানীয়রা জানায়, বালু ভরাট কাজে একটি অবৈধ ড্রেজারের হয়ে মোশারফ মেম্বার আর্থিক সুবিধা নিয়ে এলাকায় তদারকীর কাজকর্ম করে। এনিয়ে কাজে ক্ষতিগ্রস্ত মধ্য কামারগাঁও গ্রামের আমিনুল ইসলার কাজে আপত্তি জানালে ড্রেজার সিন্ডিকেটের হয়ে মোশারফ মেম্বার ক্ষিপ্ত হয়। এনিয়ে গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ভাগ্যকুল এলাকার প্রতিবন্ধী স্কুলের সামনে ও পরের দিন শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে বলহরির দোকানে সামনে মোশারফ মেম্বার ও আমিনুলের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মেম্বারের লোকজন ওই বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়।

এ সয়ম স্থানীয় দোকানী অরজিনসহ বেশ কয়েকজন জানান, শনিবার বিকালে প্রায় ৩০-৪০ জনের একটি গ্রুপ আমিনুল ইসলামের বাড়িতে এসে বাড়িতে ভাঙচূর ও বসতঘরের সামনে আগুন ধরিয়ে দেয়।

ভূক্তভোগী আমিনুল ইসলাম বলেন, আমি জানতে পারি ড্রেজারের তদারকীর কাজে মোশারফ ১ লাখ টাকা নিয়ে এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে কাজ উঠিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে আসছে। আমার সাথে কথা ছিল তারা আমার এখানে ছোট একটি ডোবা বালু ভরাট করে দিবেন। এছাড়াও ড্রেজারের পানিতে যাতে কোনও কৃষি জমির ক্ষতি না হয় সেজন্য তাদের খরচে আমি ড্রেজারের ময়লা পানি অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছি। এতে তারা আমাকে জালানী তেলের খরচবাবদ ৫ হাজার টাকাও দিয়েছেন। যখন জানতে পারি তাদের কাজটি হয়ে গেলে ডোবাটি ভরাট করবেনা তখন আমি কাজে বাঁধা দিলে মোশারফ মেম্বার আমার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে চরথাপ্পর দেয়। পরের দিন উত্তেজিত হলে আমি তাকে ধাক্কা দেই। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তার লোকজন পাঠিয়ে আমার বাড়ি ভাঙচুর ও আগুন ধরিয়ে দেয়। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করবেন।

ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মো.মোশারফ বেপারীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার বাড়িতে হামলার সময় আমি থানায় ছিলাম। এ ঘটনার আমি কিছু জানিনা। আমার ওপর দোষ চাপিয়ে দেয়ার জন্য আমিনুল একথা বলছে। ড্রেজার সিন্ডিকেটের কাছ থেকে সুবিধা নেয়ার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হেদায়াতুল ইসলাম ভূঞা জানান, এখনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

আপনার মতামত লিখুন :